খামার মশা মুক্ত, বোতল ফাঁদ
Popular posts টিপস রোগ ও চিকিৎসা

কিভাবে আপনার (কবুতর,পাখী ইত্যাদি) খামার মশা মুক্ত রাখবেন। বোতল ফাঁদ !

আপনি কি কবুতর, পাখি বা গবাদিপশু লালন পালন করেন ? আপনি কি খামারে মশার উপদ্রব নিয়ে চিন্তত ? তাহলে আজ জেনে নিন কিভাবে আপনার খামার মশা মুক্ত রাখবেন।  সারা বছর মশার প্রচন্ড উপদ্রব-এ আমরা প্রচুর বিরক্ত। মশার মাধ্যমে বা মশার কামড়ে হতে পারে বিভিন্ন রকমের রোগ বালাই। এর ফলে ক্ষতি হতে পারে আপনার ব্যবসা।

মশার উপদ্রব থেকে রেহাই পেতে আমরা ব্যবহার করি কয়েল। কিন্তু আপনি কি জানেন কয়েল ব্যবহার আপনার খামারের পশু পাখির ও মানুষের জন্য কত ক্ষতিকর?



মশা মারার কয়েলের ক্ষতিকর দিকঃ

  • আপনি যদি একটি মশার কয়েল টানা ৮ ঘন্টা জ্বালিয়ে রাখেন তাহলে ১৩৭টি সিগারেটের পরিমান বিষাক্ত ধোঁয়া আপনি গিলছেন।
  • কয়েলে যে গুঁড়া দেখেন সেটা এতটাই সূক্ষ্ম যে তা সহজেই আমাদের শ্বাসনালীর এবং ফুসফুসের পথে গিয়ে জমা হয়ে বিষাক্ততা তৈরি করে।
  • কয়েলের ধোঁয়া চোখের ভীষন ক্ষতি করে, দীর্ঘদিন ব্যবহারে চোখের ভয়াবহ ক্ষতিসাধন হতে পারে।
  • কয়েল মশাকে তাৎক্ষনিক মারে কিন্তু মানব দেহে স্লো পয়জনিং করে, ধীরে ধীরে মানুষ মৃত্যুর দিকে ধাবিত হয়।

এ্যারোসলের ক্ষতিকর দিকঃ

  • এ্যারোসল হার্টের জন্য খুবই ক্ষতিকর। মানব দেহের হার্ট সরাসরি এ্যারোসলের দ্বারা ক্ষতিগ্রস্থ হয়।
  • এ্যারোসলের ক্যামিকেল চোখের ক্ষতি করে, দীর্ঘদিনের ব্যবহারে চোখের কার্যক্ষমতা পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

কিভাবে বোতল ফাঁদ  ব্যবহার করে খামার মশা মুক্ত রাখতে পারবেন  ।

যা যা লাগবে বোতল ফাঁদ বানাতে:

  1. একটি ২ লিটার বোতল
  2. ২০০-৩০০ মিলি লিটার ইষৎ গরম পানি
  3. ৫০-৬০ গ্রাম সুগার
  4. ১ চা চামুচ ইস্ট
  5. টেপ বা স্টেপলার

যেকোন সুপার স্টোর কিংবা বড় জেনারেল স্টোরগুলোতে ইস্টের বিভিন্ন সাইজের বোতল পাওয়া যায়। সেখান থেকে ক্রয় করে নিতে পারেন। ইস্ট সাধারণত এক প্রকার ছত্রাক তবে এই খাবার জিনিস তৈরির কাজে ব্যবহৃত হয়। পাউরুটির তৈরির জন্য অন্যতম প্রয়োজনীয় উপাদান এই ইস্ট।

কিভাবে বোতল ফাঁদ বানাবেন:

ধাপ ১ >> প্রথমে ২ লিটার বোতল টিকে উপরের অংশ থেকে সমানভাবে কেটে নি। বোতলের কেপ লাগবে না। নিচের ছবির মত করে কাটুন।

ধাপ 2 >> সুগার ও ইষৎ গরম পানি ভালোভাবে মিশান । তারপর ১ চা চামুচ ইস্ট পানি ও চিনির মিস্রনে দিন । ইস্ট দেয়ার পর নাড়ানোর কোন প্রয়োজন নেই।

ধাপ ৩ >> তারপর বোতলের উপরের অংশ টি চিৎ করে বোতলের নিচের অংশ টির উপর বসিয়ে দিন । তারপর যেকোনো টেপ দিয়ে সুন্দর করে বোতলের দুইটি অংশ জোড়া দিন যেন কোন খালি অংশ না থাকে। বোতলের মুখের অংশটির কেপ লাগাবেন না। এই অংশ দিয়ে মশা প্রবেশ করবে।

ব্যস! হয়ে গেলো মশা মারার হোমমেড ফাঁদ। এবার ফাঁদটিকে খামারের যেকোন কোনায় রেখে দিন। খেয়াল রাখবেন যেন আপনার খামারের পশু পাখি যেন ফাঁদটির উপর বসতে না পারে।

সর্তকতাঃ বাচ্চাদের নাগালের বাইরে রাখুন। যাতে তারা ভুলে খেয়ে না ফেলে।


7 thoughts on “কিভাবে আপনার (কবুতর,পাখী ইত্যাদি) খামার মশা মুক্ত রাখবেন। বোতল ফাঁদ !”

    1. Hi Md Perves,

      panir moriman hobe 200-300 m.l and misronti apni 2/3 weeks rakte parben. kintu mosa jodi na more tahole mistronti notun kore banate hobe as per above post…

      thanks

  1. যা যা লাগবে সেখানে এক চামচ ইষ্ট আবার খিভাবে বানাবেন সে বর্ণনায় এককাপ ইষ্ট বলা হয়েছে, কোনটা সঠিক?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *